বিপিএল খেলার অনুমতি চাইল ভারতীয় ক্রিকেটাররা

দাবিটা আগেই তুলেছিলেন সুরেশ রায়না। এবার সুর মেলালেন রবিন উথাপ্পা। আইপিএলের বাইরে বিদেশি ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি লিগ খেলার নিয়ম নেই ভারতীয় ক্রিকেটারদের। এ নিয়মের শিথিল করাতে চান তাঁরা। বিবিসি পডকাস্ট ‘দুসরা’য় এ কথা বলেন ভারত জাতীয় দলে ‘সাবেক’ বনে যাওয়া উথাপ্পা।

কলকাতা নাইট রাইডার্সের এ ক্রিকেটার বলেন, ‘অনুগ্রহ করে আমাদের যেতে দিন। (বিদেশে) খেলতে যেতে না দিলে আঘাত লাগে। বাইরে গিয়ে খেলতে পারলে খুব ভালো হয়। কারণ এই খেলার ছাত্র হিসেবে সব সময়ই যতটা সম্ভব শিখতে ও বেড়ে উঠতে চাইবেন।’বিগব্যাশ, বিপিএল, সিপিএল, পিএসএল, এসব ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে খেলার অনুমতি নেই ভারতীয় ক্রিকেটারদের। এমনকি অনুমতি নেই অন্য কোনো দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলারও।

একটু বয়স হয়ে যাওয়া ভারতীয় ক্রিকেটারদের ক্যারিয়ার সে কারণে লম্বা হচ্ছে না। কারণ আইপিএলে তো আর সবাই খেলার সুযোগ পাচ্ছে না। বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী এ বিষয়টি দেখবেন বলে আশা করছেন ৩৪ বছর বয়সী উথাপ্পা, ‘সৌরভ গাঙ্গুলী প্রগতিমূলক ধ্যান-ধারনার মানুষ। এমন কেউ যিনি ভারতকে সব সময় পরের ধাপ নিতে চেয়েছেন। ভারতীয় ক্রিকেট আজ যে জায়গায় দাঁড়িয়ে, এর ভিত্তিটা গড়েছেন তিনি।

আশা করি কোনো এক সময় তিনি এ বিষয়টি দেখবেন।’এর আগে ভারতের সাবেক পেসার ইরফান খানের সঙ্গে ইনস্টাগ্রাম লাইভে একই দাবি তুলেছিলেন সুরেশ রায়না। জাতীয় দল থেকে বাদ পড়ায় ঘরোয়াতে খেলছেন এমন উল্লেখযোগ্য দল তাঁর চেন্নাই সুপার কিংস। তাদের হয়ে আইপিএলে আর কতদিনই বা খেলা যায়!

ঘরোয়াতে আর দু-একটি টুর্নামেন্ট বাদ দিলে বাকি সময় বসেই থাকতে হয় রায়নার মতো জাতীয় দল থেকে বাদ পড়া ক্রিকেটারদের। রায়না মনে করেন, এমন ক্রিকেটারদের দেশের বাইরে ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ খেলার অনুমতি দেওয়া উচিত, ‘আশা করি বিসিসিআই আইসিসি বা ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর সঙ্গে আলোচনা করে বোর্ডের চুক্তির বাইরে থাকা খেলোয়াড়দের দেশের বাইরে খেলার ব্যবস্থা করবে। এমন অনেক খেলোয়াড় আছেন–আমি, ইউসুফ (পাঠান), রবিন উথাপ্পা। এরকম অনেকেই আছে যারা বাইরের লিগ খেলতে পারত এবং অনেক কিছু শিখতে পারত। সেটা যে লিগই হোক না কেন।’

About admin

Check Also

মেসির আরেকটি মাইলফলক

কদিন আগে ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তী পেলের এক ক্লাবের হয়ে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড ভেঙে দিয়েছেন। এবার বার্সেলোনার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *