করোনার বিরুদ্ধেও প্রবাসীদের জয়, রেমিটেন্সে নতুন রেকর্ড

করোনা সংকটে বিশ্বজুড়ে অর্থনৈতিক স্থবিরতার মধ্যেই প্রবাসীদের আয়ে নতুন রেকর্ড করেছে বাংলাদেশ। সদ্যসমাপ্ত বছরে ২ হাজার ১৭৪ কোটি ডলার পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা; টাকার অংকে যা দাঁড়ায় ১ লাখ ৮৪ হাজার ৩৫৫ কোটি ২০ লাখ টাকা। অথচ ২০১৯ সালে রেমিটেন্স থেকে বাংলাদেশের আয় ছিলো ১ লাখ ৫৫ হাজার ৩৫৩ কোটি টাকা। অর্থাৎ মাত্র এক বছরেই তা বেড়েছে ২৯ হাজার কোটি টাকা, যে বছর কিনা বিবেচিত হচ্ছে মানব সভ্যতার ইতিহাসের অন্যতম বিপর্যয়কর বছর হিসেবে।

গণমাধ্যমে অর্থ মন্ত্রণালয়ের পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২০১৯-২০ অর্থবছর থেকে ২ শতাংশ প্রণোদনা দেওয়ার পর থেকেই প্রবাসী আয়ে গতি আসে। করোনা সংকটের মধ্যে যা ছাড়িয়ে গেছে অতীতের সব রেকর্ড। এজন্য, বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা সব প্রবাসী বাংলাদেশি ও দেশবাসীকে ধন্যবাদ দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

করোনা হানা দেয়ার আগে ফেব্রুয়ারিতে রেমিটেন্স এসেছিলো ১৪৫ কোটি ডলার, মার্চে তা কমে ১২৮ কোটি ৬৮ লাখ ডলারে নামে। ভাইরাস সংক্রমণ বাড়লে এপ্রিলে যা আরও কমে দাঁড়ায় মাত্র ১০৮ কোটি ডলার। যদিও এরপরই বাড়তে থাকে প্রবাসীদের পাঠানো অর্থের পরিমাণ।

মে মাসে রেমিটেন্স আসে ১৫০ কোটি ডলার, আর জুনে ১৮৩ কোটি ডলার। ঈদের মাস জুলাইয়ে এক লাফে প্রবাসী আয় উঠে যায় ২৬০ কোটি ডলারে। একক মাসের হিসেবে যা এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ আয়। এরপর আগস্টে ১৯৬ কোটি ডলার, সেপ্টেম্বরে ২১৫ কোটি ডলার, অক্টোবরে ২১০ কোটি ডলার ও নভেম্বরে ২০৭ কোটি ডলার আসে। আর ডিসেম্বরে প্রবাসীরা পাঠান ২০৫ কোটি ডলার।

About admin

Check Also

সৌদির সঙ্গে ফ্লাইট চালুর তারিখ জানাল বাংলাদেশ বিমান

সৌদি সরকার কর্তৃক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করায় আগামী ৬ জানুয়ারি থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের সৌদি আরবগামী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *